28 C
Kolkata
Saturday, July 13, 2024

রাস্তার হকারদের ডিজিটাল প্রক্রিয়ায় লেনদেনের মাধ্যমে উৎসাহব্যঞ্জক সুবিধা দেওয়া হবে : প্রধানমন্ত্রী

Must Read

খবরইন্ডিয়াঅনলাইন, নয়াদিল্লিঃ প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী আজ আবাসন ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রকের পিএম-স্বনিধি প্রকল্পের বাস্তবায়নের পর্যালোচনা করেছেন।

এই প্রকল্পের জন্য এ পর্যন্ত ২ লক্ষ ৬০ হাজার আবেদন জমা পড়েছে। ৬৪ হাজারেরও বেশি আবেদন মঞ্জুর হয়েছে এবং ৫,৫০০ জনকে ইতিমধ্যেই ঋণ দেওয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী ওয়েব পোর্টাল এবং মোবাইল অ্যাপের সাহায্যে পুরো প্রক্রিয়াটি করার জন্য সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে পুরো প্রকল্পের কাজ হওয়ায় স্বচ্ছতা, দায়বদ্ধতা এবং দ্রুততার সঙ্গে কাজ করার বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছে।

আবাসন ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রক পুরো প্রকল্পের নিরবচ্ছিন্ন বাস্তবায়নের জন্য একটি মোবাইল অ্যাপ সহ তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবস্থাপনার কাজটি করেছে। প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, রাস্তার হকারদের ডিজিটাল প্রক্রিয়ায় লেনদেনে উৎসাহিত করতে হবে। কাঁচা মাল সংগ্রহ করা থেকে সেগুলি বিক্রির পুরো প্রক্রিয়াটি এই পদ্ধতিতে করার ব্যবস্থা করতে হবে। ডিজিটাল প্রক্রিয়ায় এই লেনদেনের জন্য রাস্তার হকাররা যে প্রোফাইল তৈরি করবেন তার মাধ্যমে ভবিষ্যতে তাঁদের আর্থিক চাহিদা পূরণ করতে সরকারের সুবিধে হবে।

আরও পড়ুন -  Tea Garden: চা বাগান এলাকার মানুষদের সার্বিক উন্নতির প্রচেষ্টা

প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, এই প্রকল্পের মাধ্যমে রাস্তার হকারদের ঋণদানের সুযোগের পাশাপাশি তাঁদের সর্বাঙ্গীণ উন্নয়ন ও আর্থিক উন্নতির জন্যও সরকার নানাবিধ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবে। এঁদের আর্থ-সামাজিক বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য হাতে পেলে প্রয়োজনীয় নীতি গ্রহণ করা যাবে। এই তথ্য কেন্দ্রের বিভিন্ন মন্ত্রক ব্যবহার করে তাদের নানা প্রকল্পে সুবিধা দিতে পারবে। উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, পিএমএওয়াই-ইউ যোজনার আওতায় বাড়ি, উজ্জ্বলা যোজনায় রান্নার গ্যাস, সৌভাগ্য যোজনায় বিদ্যুৎ, আয়ুষ্মান ভারতের আওতায় স্বাস্থ্য, ডিএওয়াই-এনইউএলএম-এর আওতায় দক্ষতার প্রশিক্ষণ, জন ধনের আওতায় ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের সুবিধা দেওয়া যাবে।

আরও পড়ুন -  নির্ভয়ে ভোট দেওয়ার আহ্বান

প্রেক্ষাপট

কেন্দ্র প্রায় ৫০ লক্ষ রাস্তার হকারদের ব্যবসা শুরু করার জন্য এক বছরের মেয়াদে ১০ হাজার টাকা মূলধন ঋণ হিসেবে পিএম-স্বনিধি প্রকল্পের মাধ্যমে দেবে। এই ঋণদানের প্রক্রিয়ার জন্য কোন অর্থ দিতে হবে না। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ঋণ পরিশোধ করতে পারলে হকাররা বার্ষিক ৭ শতাংশ হারে সুদের টাকা ভর্তুকি হিসেবে ফেরত পাবেন এবং তাঁরা যদি ডিজিটাল প্রক্রিয়ায় আর্থিক লেনদেন করেন তাহলে সর্বোচ্চ ১,২০০ টাকা ফেরত পাবেন।

আরও পড়ুন -  নির্বাচন পিছিয়ে গেল পাকিস্তানের

যদি কোন হকার নির্দিষ্ট সময়ে তাঁর ঋণ পরিশোধ করতে পারেন এবং ডিজিটাল প্রক্রিয়ায় আর্থিক লেনদেনের সমস্ত রিসিট দেখাতে পারেন, তাহলে তাঁকে ঋণের জন্য কোন সুদ দিতে হবে না। এছাড়াও, নির্দিষ্ট সময়ে ঋণ পরিশোধ করলে পরবর্তী ঋণের সুবিধা ওই হকার পাবেন। পিএম-স্বনিধি প্রকল্পের ঋণদানের প্রক্রিয়া ২ জুলাই থেকে শুরু হয়েছে। স্মল ইন্ডাস্ট্রিজ ডেভেলপমেন্ট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া এই প্রকল্পটি রূপায়ণের দায়িত্ব পেয়েছে। সূত্র – পিআইবি।

Latest News

Hardik Pandya: হার্দিক পান্ডিয়ার ‘মিস্ট্রি গার্ল’ সত্যি সুন্দরী, ছবি দেখে নিন

Hardik Pandya: হার্দিক পান্ডিয়ার ‘মিস্ট্রি গার্ল’ সত্যি সুন্দরী, ছবি দেখে নিন। ক্রিকেটার হার্দিক পান্ডিয়া ও স্ত্রী নাতাশা স্ট্যানকোভিচ কি এখনও...
- Advertisement -spot_img

More Articles Like This

- Advertisement -spot_img